মুখে সেহরির খাবার থাকতেই ফজরের আজান শুরু হলো, কী করবেন?

16
Spread the love

মহামান্বিত পবিত্র রমজান মাস শুরু হয়েছে। এই মাসে কোরআন শরিফ নাজিল শুরু হয়েছিল হযরত মুহাম্মদ সা. এর ওপর। ইসলামে এই মাসের যে ফজিলত, তা প্রত্যেক মুসলমানকেই মহান আল্লাহর নৈকট্য লাভে সাহায্য করে। আর এই রমজানকে ঘিরে আমাদের মধ্যে আছে অনেক প্রশ্ন।

প্রশ্ন: ধরা যাক সেহরি খাচ্ছেন। মুখের ভেতর তখনও খাবার, এমন সময় ফজরের আজান দিলো। কী করবেন?

উত্তর: সেহরির শেষ সময় হচ্ছে সুবহে সাদিক। ফজরের ওয়াক্তও শুরু হয় সুবেহ সাদিক থেকে। যখন‌ই সেহরির সময় শেষ, তখনই ফজরের সময় শুরু। ফজরের আজানের সঙ্গে সেহরির শেষ ওয়াক্তের সরাসরি সম্পর্ক নেই। যদি মুয়াজ্জিন সুবহে সাদিক হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ফজরের আজান দিয়ে থাকেন, তবে ওই অবস্থায় খানাপিনা বন্ধ করে দেবেন। মুখের খাবারও ফেলে দেবেন। যদি তা গিলে ফেলেন, তবে রোজা ভঙ্গ হবে।

তথ্যসূত্র: সুরা বাকারা, আয়াত নং-১৮৭, হেদায়া, খণ্ড-১, পৃষ্ঠা-২১৬, কিতাবুল ফাতাওয়া, খণ্ড-৩, পৃষ্ঠা-৪২৬

সংকলনে: মাওলানা মুফতি ইমরানুল বারী সিরাজী,

দাওরায়ে হাদিস, দারুল উলুম দেওবন্দ, উত্তর প্রদেশ, ভারত। খতিব, পীর ইয়ামেনী জামে মসজিদ, গুলিস্তান, ঢাকা। মুফতি ও মুহাদ্দিস, জামিয়া আরাবিয়া দারুল উলুম নতুনবাগ মাদ্রাসা, রামপুরা, ঢাকা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here